সাদা কাগজ
Would you like to react to this message? Create an account in a few clicks or log in to continue.
Go down
avatar
নবাগত
নবাগত
Posts : 1
স্বর্ণমুদ্রা : 176
মর্যাদা : 10
Join date : 2021-05-29
View user profile

মধ্যরাতের আতঙ্ক - মোহাম্মদ নুরুল আজিম  Empty মধ্যরাতের আতঙ্ক - মোহাম্মদ নুরুল আজিম

Sat May 29, 2021 2:02 am
রাত প্রায় ১ টা বেজে ১৫ মিনিট। বিছানায় শুয়ে শুয়ে মোবাইল টিপছি। বাইরে একটু একটু করে বৃষ্টি হচ্ছে।
আজকে বাসায় আমি একা। পরিবারের সবাই বিকেলে আপুর বাসায় গিয়েছিলো। আমাকে যেতে বলেছিলো তবে যেতে ইচ্ছে হলো না তাই যাইনি। মোবাইলটা পাশে রেখে শুয়ে পড়লাম। বাইরের বজ্রপাতের আওয়াজ কানে ভেসে আসতেছে। কারেন্ট টাও একবার যাচ্ছে একবার আসতেছে। গায়ে কম্বল মুড়িয়ে শুয়ে আছি। ঘুম যেন কিছুতেই আসছে না। এপাশ ওপাশ কাত হচ্ছি তারপরও ঘুম আসছে না।
.
যখন একা থাকি তখন দুনিয়ার সব ভয় নিজেকে গ্রাস করে ফেলে। আজকেও ঠিক একই ঘটনা ঘটছে মনের ভেতর। দুপুরে দেখা ভূতের সিনেমাটার কথা বারবারই মনে পড়ছে। মনকে অনেক দিকে সরানোর চেষ্টা করছি কিন্তু কোনোভাবে সরছেই না। চোখ বন্ধ করার সাথে সাথেই কয়েকটা ঘটনা চোখের উপর ভাসছে। কিছু করতেই পারছি না।
.
হঠাৎ করে মনে হলো বাইরে থেকে কারো আওয়াজ শুনলাম। কেউ মনে হয় আমাকে ডাকছে। দরজায় আঘাত করছে কয়েকবার। খাট থেকে সোজা নেমে দরজার কাছে চলে আসলাম। দরজা খুলতে খুলতে মনে করছি কয়বার ডেকেছেন। দরজা খুলে বাইরে বের হলাম। চারপাশ বেশ অন্ধকার। কারেন্ট নেই। মোবাইলের লাইটের আলোটাই শেষ ভরসা। বাইরে অনেক তাকিয়ে দেখলাম কেউ নেই।
.
আচমকা ভয় পেয়ে গেলাম। এটা কেম্নে সম্ভব? একটু আগেই তো আমাকে ডেকেছিলো। ঘরের ভেতরে চলে আসলাম। বিছানায় আবার শুয়ে পড়লাম। আবার দেখি একইভাবে ডাকছে, 'চয়ন, চয়ন, একটু তাড়াতাড়ি বের হও তো!'
আমি জিজ্ঞেস করলাম, 'কে আপনি? আপনার গলার আওয়াজ শুনে মনে তো হচ্ছে না আপনাকে চিনি!'
তিনি জবাবে কিছুই বললেন না। শুধু বললেন, 'একটু তাড়াতাড়ি বের হও।'
.
আবার বিছানা থেকে উঠে দাঁড়ালাম। দরজা খুলে সামনে তাকাতেই দেখলাম কেউ যেন বৃষ্টির ভেতর দৌড়ে চলে যাচ্ছে। আমি ডাক দিয়ে বললাম, 'দাঁড়ান আঙ্কেল! আপনি কাকে খুঁজছেন?'
তিনি পেছনে না ফিরেই বললেন, 'আসো একটু, দরকার আছে।'
.
উনার কথার কিছুই বুঝলাম না। তার পেছনে পেছনে হাঁটছি। একটু কাছাকাছি আসতেই দেখলাম তার পাশে আরেকটি লোক চলে আসছে। কিছুই বুঝলাম না। এতক্ষণ অবধি ছিলেন শুধু তিনি একজনই। হুট করে আরেকজন কোত্থেকে চলে আসছে টেরই পেলাম না।
এক জায়গায় দাঁড়িয়ে রইলাম। চারদিকে ঘুটঘুটে অন্ধকার। কিছুই বুঝতে পারছি না। মোবাইলের টর্চের একটু আলো থাকায় সামনে একটু দেখা যাচ্ছে। সামনের লোক দু'টো পাশাপাশি দাঁড়িয়ে রয়েছে। হুট করে দু'জনেই একসাথে ফিরে তাকালো আমার দিকে।
.
তাদের মধ্যে একজন ডাক দিয়ে বললেন, 'দাঁড়িয়ে গেলেন কেন? আসুন তাড়াতাড়ি। দেরি হয়ে যাচ্ছে যে!'
এই আওয়াজটা অন্য ব্যক্তিটির ছিলো। এটা প্রথম শুনলাম। আগের লোকটির আওয়াজ একটু ভিন্ন ধরনের হলেও এই আওয়াজটা পুরো ব্যতিক্রম। মনে হচ্ছে না মানুষের আওয়াজ এরকম হয়। অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইলাম দুইজনের দিকেই। বুঝতে পারছি না এরা আদৌও মানুষ কি না। আমার পুরো শরীর থরথর করে কেঁপে উঠছে। আমার সবচেয়ে বড় ভুল ছিল কয়বার ডেকেছেন তা না গুনে এখানে চলে আসাটা। আম্মু সবসময় বলতো, 'রাতের বেলায় কেউ ডাকলে ততক্ষণ পর্যন্ত সাড়া দিবি না যতক্ষণ অবধি তিনবার না ডেকেছে। কারণ হচ্ছে, শয়তান ডেকে নিয়ে মানুষের ক্ষতি করে। পরে কাউকে খুঁজে পাওয়া যায় আর কাউকে পাওয়া যায় না। যাদের পাওয়া যায় তাদের কিছু অঙ্গ পতঙ্গ খুঁজে পাওয়া যায় না। আর তারা দুয়ের অধিক ডাকেন না।'
.
বুঝতে পারছি না কি ঘটতে চলেছে আমার সাথে। হঠাৎ বজ্রপাতের শব্দ আসলো কানে। মাথা উঁচু করে আকাশের দিকে তাকালাম। বৃষ্টি হচ্ছে এখনো। সামনের দিকে তাকাতেই আমি যেন থমকে গেলাম। শরীরের লোম দাঁড়িয়ে গেছে। সামনে একসাথে পাঁচজন লোক দাঁড়ানো। কি করব কিছুই বুঝতে পারছি না। সামনে দাঁড়ানো লোক গুলোর অবস্থা অত্যন্ত ভয়ংকর। একজনের হাতে একটি কাটা মাথা। তার শরীর বেয়ে ঝরঝর করে রক্ত ঝরছে। তারপাশের লোকটি ডান হাত বাম হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। তার শরীরের ডান পাশ দিয়ে রক্তের বন্যা বয়ে যাচ্ছে। তৃতীয় ব্যাক্তিটি একটি চোখ হাতে নিয়ে আমার দিকে তাকিয়ে খিলখিল করে হাসছে। তার পরের দু'জনেই হাতে কাটা মাথা নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। একজন অট্টহাসি দিয়ে বলল, "কোনটা পছন্দ হয়েছে তোমার? আমাদের থেকে যা ইচ্ছা নিতে পারো। আর তোমার যদি নিতে ইচ্ছে না হয় আমাদের কিছু দিয়ে দিতে পারো।"
এই কথা শুনার পরে আর কিছু মনে নেই।
.
চোখ খুলতেই দেখলাম মাথার উপর এক বিশাল বড় বটগাছ। উঠে দাঁড়ালাম কোনোরকমে। বুঝতে পারলাম যে, দিন হয়ে গেছে। চারপাশে তাকিয়ে বুঝতে পারলাম জায়গাটার অবস্থান। বাড়ি থেকে মিনিট পাঁচেক সময় লাগে এইখানে আসতে। রাতের ঘটনা মনে পড়তেই শরীরের লোম দাঁড়িয়ে গেছে। ঠিক পাঁচ বছর আগে এইখানে পাঁচটি লোককে ডাকাতরা নির্মম ভাবে খুন করেছিল।

Khondkar, Shuvo, Hasibul hasan, Nasim, Mr.twist, Mr kiddo, Mahmud and লেখাটি পছন্দ করেছে

Back to top
Permissions in this forum:
You cannot reply to topics in this forum